Shadow

বাংলাদেশের বন্যা

বাংলাদেশের বন্যা

বাংলাদেশের বন্যা
বাংলাদেশের বন্যা

বন্যা বাংলাদেশের বড় সমস্যাগুলোর একটি । প্রতিবছরই বাংলাদেশে কম বেশি বন্য হয়েই থাকে । এতে করে বেশি ক্ষতি গ্রস্ত হয়

বাংলাদেশের নিঁচু অঞ্চলগুলো । তবে বন্যার কিছু ভালো দিকো আছে । বন্যার পানি নিঁচু জমিগুলোতে পলি নিয়ে এসে ফসলী

জমী উর্বর করে ।

বাংলাদেশে বন্য হওয়ার কয়েকটি কারণ নিম্মে উল্লেখ করা হলঃ

বাংলাদেশ নদীমাতৃক একটি দেশ । বর্ষার নদীগুলো পানিতে পরিপূর্ণ হয়ে যায় । এত নদীগুলো সাধারণত ফসলী জমিকে উর্বর

করে থাকে । বর্ষাকালে নদীর পানি উপচে পড়ে বন্যার সৃষ্টি হয় ।

পৃথিবীর জলবায়ুর পরিবর্তন হচ্ছে । মেরু অঞ্চলের বরফ গলে সমুদ্র পৃষ্টের উচ্চতা বাড়ছে । বাংলাদেশের নদীগুলো সাধারণত

সাগরের সাথে যুক্ত । তাছাড়া বাংলাদেশে যেটি পদ্মা নামে পরিচিত সেটিই ভারতে গঙ্গা নামে পরিচিতি লাভ করেছে । অনেক

সময় ভারতে পানির পরিমাণবেড়ে গেলে তারা নদীগুলোর মুখ খুলে দেয় । এতে করে নদীর পানি বাংলাদেশে প্রবেশ করতে থাকে

। ফলে বন্যার সৃষ্টি হয়ে যায় ।

বাংলাদেশের বন্যা

বাংলাদেশের বন্যা
বাংলাদেশের বন্যা

বন্যা হলে কী কী ক্ষতি হতে পারে তা নিম্মে আলোচনা করা হলঃ-

বন্যা আমাদের দেশের মানুষের জন্য বিপদের আরেক নাম । একটি দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করতে এবং মানুষের কর্মজীবন নষ্ট

করতে বন্যা আরেক বিপদের নাম । এর ক্ষতি সম্পর্কে নিম্মে আলোচনা করা হলঃ

অর্থনৈতিক ক্ষতিঃ বন্যার সময় একটি দেশ অনেক ভাবে পিছিয়ে পড়ে। মানুষজন কর্মহীন হয়ে পড়ে । যেসব এলাকায় বন্যার

সৃষ্টই হয় সেই সব এলাকাতে দারিদ্রতার সৃষ্টি হয় । মানুষদের খাদ্য দ্রব্য নষ্ট হয়ে যায় । তাদের আবাদি জমি পানিতে থাকার কারণে

সব ফসল নষ্ট হয়ে যায় । এতে করে দেশের অর্থনীতিতে একটি বড় প্রভাব পড়ে ।

শিক্ষার দিক দিয়ে পিঁছিয়ে পড়াঃ যেসব অঞ্চলে বন্যার সৃষ্টই হয় ,ওই সব অঞ্চলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সব কিছু পানিতে ডুবে  যাওয়ার

কারণে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে যেতে পারে না। এতে করে তারা পড়াশুনা থেকে পিঁছিয়ে পড়ে ।

বাংলাদেশের বন্যা

খাদ্য সমস্যাঃ বন্যার কারণে দেশের সকল আবাদি জমি পানির নিচে থাকায় ফসল ক্ষতি গ্রস্থ হয় । পুকুর ডুবে যাওয়ার কারণে

মাছ বেড় হয়ে যায় । এতে করে মাছের পোনা উৎপাদন ক্ষতি গ্রস্থ হয় । এবং ফসল নষ্ট হয়ে যায় । ফলে উপযুক্ত ফসল না থাকার

কারণে দেশে খাদ্যের সমস্যা দেখা দেয় ।

যোগাযোগ ব্যবস্থা বিছিন্নঃ বন্যার ফলে রাস্তা ডুবে যায় । অনেক সময় বন্যার পানি এত জোড়ালো হয় যে রাস্তা ভেঙ্গে যায় । তখন

যোগাযোগ ব্যবস্থা বিছিন্ন হয়ে যায় । যার ফলে মানুষ নানা দূর্ভগে পড়ে ।

নানা রোগের অবির্ভাবঃ বন্যা মুলত সৃষ্টি হয় অনেক জায়গার পানি এসে জমা হয়ে । এই সব পানি সাধারণত সেই সব জায়গার

রোগ জীবাণু নিয়ে আসে । ফলে বিভিন্ন রোগের আবির্ভাব সৃষ্টি হয় । তাছাড়া বন্যার কারণে  পানি দূষণও হয় । এতে করে পানি

বাহিত রোগের সৃষ্টি হয় ।

শিশু মৃত্যু ও মৃত্যুর হার বৃদ্ধিঃ বন্যার সময়  সাধারণত পানির পরিমাণ বেড়ে যায় । এতে করে বেশি সমস্যায় থাকে শিশুরা । তারা

সাধারণত সাঁতার জানি না । যার ফলে পানিতে ডুবে মারা যায় । সাঁতার না জানা ব্যক্তিরা একস্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়ার জন্য

ভীষণ দুর্ভোগ পোহাতে হয় । পানি নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে গেলে তাদের পানিতে ডুবে মরতে হয় হয় । তাছাড়াও পানি বাহিত

রোগের কারণেও অনেকের মৃত্যুও হতে পারে । এ ছারাও পর্যাপ্ত খাবারের অভাবেও অনেকেই না খেয়ে মারা যায় ।

বাংলাদেশের বন্যা

বাংলাদেশের বন্যা
বাংলাদেশের বন্যা

 

খাদ্য প্রস্তুত করে রাখাঃ যেহেতু আমরা প্রতি বছরই বন্যার মুখোমুখি হয়ে থাকি , এবং এই সময় প্রচুর খাদ্যের সংকোট দেখা দেয়

,তাই এই সমস্যা এড়াতে পর্যাপ্ত খাদ্য প্রস্তুত রাখতে হবে ।

নিরাপদ আশ্রয়ের ব্যবস্থা রাখাঃ বন্যার সময় শিশু মৃত্যু সহ ,অনেক মানুষের প্রাণ হানি হয় । তাই তাদেরকে নিরাপদ আশ্রয়ে

নিয়ে যাওয়ার জন্য একটি ব্যবস্থা রাখতে হবে। যে সব জায়গা উচুঁ ,সাধারণত বন্যার পানি যেখানে যায় না, সেই জায়গার ব্যবস্থা

করা রাখতে হবে । যাতে সকলেই নিরাপদে থাকতে পারে ।

পরিশেষে বলা যায়, প্রাকৃতিক দূর্যোগ বন্যা থেকে  রক্ষা পেতে আমরা সচেতন এবং কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করলেই সাধারণ মানুষ

এর কবল থেকে রক্ষা পাবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.